গলা ও ঘাড়ের কালো দাগ দূর করুন মাত্র দুটি উপকরণে

আমরা যখন সৌন্দর্য চর্চা করি তখন সাধারণত শুধু মুখ আর চুলের দিকেই বেশি নজর দেই। কোন কোন সচেতন নারী হয়তো বা হাত পায়েরও যত্ন নিয়ে থাকেন। কিন্তু আমাদের শরীরের একটা অংশ কম বেশি সবাই অবহেলা করে থাকেন। সেটি হচ্ছে আমাদের গলা আর ঘাড়। এজন্য দিনের পর দিন অযত্নে থাকতে থাকতে স্বাভাবিক ভাবেই আমাদের গলা ও ঘাড়ের রঙ শরীরের অন্যান্য অঙ্গশের রঙ এর তুলনায় কালো হয়ে যায়। তাছাড়া আরো অনেক কারণে গলা ও ঘাড়ের কালো দাগ সৃষ্টি হতে পারে। এসব কারণ গুলোর মধ্যে অন্যতম হচ্ছে সানস্ক্রিন ছাড়া রোদে ঘুরে বেড়ানো, ডায়াবেটিসের কারণে শরীরে ইনসুলিনের অভাব, হরমোনাল ইমব্যালান্স ইত্যাদি। সাধারণত প্রেগনেন্সির সময়েও নানা রকম হরমোনাল ওষুঢের প্রভাবের কারণেও গলা ও ঘাড়ে বিচ্ছিরি কালো দাগ সৃষ্টি হয়ে থাকে। আজ আমি আপনাদের সাথে এই জেদী গলা ও ঘাড়ের কালো দাগ দূর করার একটা সহজ ঘরোয়া উপায় নিয়ে কথা বলব।

শুরুর কথা

আমি জানি বাজারে বিভিন্ন কোম্পানির নানা রকম ক্রীম আর লোশন পাওয়া যায় শরিরের বিভিন্ন অংশের কালো দাগ দূর করে স্কিনকে ফর্সা করে তোলার জন্য। কিন্তু আমরা এতাও জানি যে এসব ক্রীম আর লোশন ব্যবহারের কিছু না কিছু সাইড এফেক্ট থাকেই থাকে। তাছাড়া এসব বিউটি প্রোডাক্ট একবার ব্যবহার করা ছেড়ে দিলে সেই পুরোনো কালো দাগ আবার ফিরে আসে। কখনো কখনো আগের থেকে আরো ভয়ানক ভাবেই এসব কালো দাগ আমাদের শরীরে ফিরে আসে। তাই এসব রিস্ক না নিয়ে আমাদের উচিত সব ধরণের সৌন্দর্য সমস্যার জন্য ঘরোয়া উপায়ের দারস্থ হওয়া। বাজারের বিউটি প্রোডাক্টের মত দ্রুত হয়তো এসব ঘরোয়া টোটকা কাজ করতে পারে না। একটু ধীরে ধীরেই এগুলো নিজের রেজাল্ট দেখায়। কিন্তু ঘরোয়া উপায় ব্যবহার করে আপনি যদি আপনার গলা ও ঘাড়ের কালো দাগ দূর করে ফেলতে পারেন তাহলে পরবর্তীতে ঐ দাগ আর ফেরত আসার সম্ভাবনা নেই বললেই চলে।

গলা ও ঘাড়ের কালো দাগ দূর করতে আমি আজ যে পদ্ধতির কথা বলব সেতা প্রয়গ করতে মাত্র দুটি উপকরণ লাগবে। আর এই দুটি উপকরণ ব্যবহার করে গলা ও ঘাড়ের কালো দাগ দূর করার পদ্ধতিটাও অত্যন্ত সোজা। চলুন দেরি না করে এই ঘরোয়া উপায়ের উপকরণ আর ব্যবহার পদ্ধতি সম্পর্কে দ্রুত জেনে নেই।

গলা ও ঘাড়ের কালো দাগ দূর করতে যা যা লাগবে

  • চালের গুড়া ২ চা চামচ
  • লেবুর রস ৩ চা চামচ

গলা ও ঘাড়ের কালো দাগ দূর করতে প্যাকটি যেভাবে বানাতে হবে

এই প্যাকটি বানানো খুবই সোজা। প্রথমে একটা বাটিতে চালের গুড়া নিন। এর মধ্যে লেবুর রস মিশান। একতা ঘন পেস্ট তৈরী করুন। লেবুর রসের পরিমাণ প্যাকের ঘনত্বের আর আপনার পছন্দের উপর নির্ভর করবে। যদি মনে হয় প্যাক বেশি ঘন হয়ে গেছে তাহলে লেবুর রসের পরিমাণ একটু বাড়িয়ে দিতে পারেন।

গলা ও ঘাড়ের কালো দাগ দূর করতে প্যাকটি যেভাবে ব্যবহার করবেন

যেকোন প্যাক ব্যবহার করার আগে আমাদের স্কিন খুব ভাল ভাবে পরিস্কার করে নেয়া উচিত। তা না হলে আমাদের স্কিনে যদি কোন ময়লা থাকে সেটি প্যাকের সাথে মিশে আমাদের স্কিনে আরো ভাল ভাবে বসে যায়। ফলে ত্বকের উপকার হওয়ার চেয়ে বরং ক্ষতিই বেশি হয়ে যায়। এজন্য এই প্যাকটি ব্যবহার করার পূর্বে অবশ্যই আপনার গলা ও ঘাড় ভাল করে সাবান বা বডি ওয়াশ দিএ ঘষে ঘষে পরিস্কার করে নেবেন। সব থেকে বেশি ভাল হয় যদি আপনি গোসল করার পর একটা পরিস্কার তোয়ালে দিয়ে গলা ও ঘাড় শুকনো করে মুছে নিয়ে তারপর এই প্যাকটি ব্যবহার করেন।

এই প্যাকটি সমান করে আপনার গলা ও ঘাড়ে লাগিয়ে রাখুন। ২০ মিনিট থেকে ২৫ মিনিট অপেক্ষা করুন। এই সময়ের মধ্যে এই প্যাকটি সম্পূর্ণ শুকিয়ে যাবার কথা। যদি প্যাকটি সম্পূর্ণ না শুকায় তাহলে আরো মিনিট পাচেঁক অপেক্ষা করতে পারেন। এরপর ঠান্ডা পানি দিয়ে খুব ভাল করে প্যাকটি পরিস্কার করে ধুয়ে ফেলুন। প্রতিদিন গোসল করার পর এই প্যাকটি আপনার গলা ও ঘাড়ের কালো দাগের উপর ব্যবহার করবেন। দেখবেন পনেরো থেকে বিশ দিনের মধ্যে আপনার গলা ও ঘাড়ের কালো দাগ হালকা হতে শুরু করেছে।

গলা ও ঘাড়ের কালো দাগ দূর করতে প্যাকটি ব্যবহারের সতর্কতা

প্রথমত আমি আগেই যেটা বলেছি। এই প্যাকটি অবশ্যই পরিস্কার শুকনা স্কিনের উপর ব্যবহার করতে হবে।

দ্বিতীয়ত গলা ও ঘাড়ের কালো দাগ দূর করতে বানানো এই প্যাকটিতে বেশ খানিকটা পরিমাণে লেবুর রস ব্যবহার করা হয়েছে। এজন্য আপনি যদি এই প্যাক ব্যবহার করে রোদে বের হন তবে আপনার ত্বক পুড়ে যাবে। শুধু তাই নয়। এই প্যাক ব্যবহার করার দুই থেকে তিন ঘন্টার মধ্যে কোন ভাবেই রোদের সংস্পর্শে আসা যাবে না। তাহলে লেবুর রস সূর্যের রস্মির সাথে বিক্রিয়া করে ত্বক পুড়িয়ে ফেলবে এবং আপনার গলা ও ঘাড়ের রঙ আর কালো হয়ে যাবে। একই কথা চুলার আগুনের ক্ষেত্রেও খাটে। গলা ও ঘাড়ে এই প্যাকটি লাগিয়ে ভুলেও রান্না করতে যাবেন না। অন্তত দুই ঘন্টার মধ্যে তো একদম না।। তা না হলে এই প্যাকটি ব্যবহার করে হিতে বিপরীত হতে পারে।

গলা ও ঘাড়ের কালো দাগ দূর করতে ব্যবহৃত এই প্যাকটির উপকারিতা

গলা ও ঘাড়ের কালো দাগ দূর করতে চালের গুড়ার উপকারিতা

চালের গুড়া হচ্ছে অতি দারুণ একট ন্যাচারাল স্ক্রাবার। শুধু তাই নয়। চালের গুড়ার মধ্যে থাকা বিভিন্ন উপাদান আমাদের ত্বকের রঙ আস্তে আস্তে হালকা করে আমাদের ত্বককে উজ্জ্বল করে তুলতে অনেক সাহায্য করে থাকে। এই প্যাকটিতে বেস হিসেবে চালের গুড়া ব্যবহার করা হয়েছে। এজন্য এই প্যাকটি ব্যবহার করলে একদিকে গলা ও ঘাড়ের উপর থেকে ডেড সেলস এর পরত একেবারেই দূর হয়ে যায়। সেই সাথে চালের মধ্যে থাকা নানা রকম পুষ্টি উপাদান আপনার রংকে আরো উজ্জ্বল করে তোলে।

গলা ও ঘাড়ের কালো দাগ দূর করতে লেবুর রসের উপকারিতা

লেবুর রস হচ্ছে আমার জানা মতে সব থেকে ভাল প্রাকৃতিক ব্লিচিং এজেন্ট। এটি যে কোন দামী ব্লিচিং এজেন্টের মতই আপনার ত্বকের রঙ হালকা করতে সাহায্য করে। এজন্য ত্বকের যে কোন ধরনের দাগ কিংবা ট্যান দূর করতে লেবুর রসের কোন জুড়ি আপনি খুজে পাবেন না। আর গলা ও ঘাড়ের কালো দাগ দূর করতে বানানো এই প্যাকটিতে অনেক খানি পরিমাণে লেবুর রস ব্যবহার করা হয়ে থাকে। এজন্য এই প্যাকটি ব্যবহার করলে আপনি মোটামুটি নিশ্চিত ভাবেই আপনার গলা ও ঘাড়ের কালো দাগ দূর করতে পারবেন।

Written By
More from Health Aide

Exercises for College Going Students to Lose Weight at Hostel or Home

College students, especially students who stay at hostels have a particularly difficult time in...
Read More